৫-১০ টাকার ঘরোয়া উপাদানেই ক্যান্সার প্রতিরোধ ।

ক্যান্সার থেকে মুক্তি পেতে বেকিং সোডা

প্রতিরোধ নিরাময় চেয়ে ভাল ।  ‘ক্যান্সার’ শব্দটি শুনেই এতকাল হাল ছেড়ে দিতেন সবাই। ভাবতেন, ক্যান্সার হলে আর রক্ষা নেই। এটি ঠেকানোর কোনো উপায়ও বুঝি নেই। কিন্তু নানা গবেষণা আর একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে-আছে, ক্যান্সার প্রতিরোধের উপায় আছে বৈকি। সহজ কিছু জীবনাচার অনুসরণ করে ক্যান্সার-ঝুঁকি কমাতে পারেন আপনিও। ক্যান্সার প্রতিরোধে আপনি নিতে পারেন কিছু পদক্ষেপ।

বেকিং সোডা:  ক্যান্সার চিকিৎসা, প্রতিরোধ ও পরীক্ষার জন্য ব্যবহার 

 

সোডিয়াম বাইকার্বোনাট (NaHCO3), সাধারণত বেকিং সোডা নামে পরিচিত, একটি স্বতন্ত্র বস্তু যা পরিবারের বেকিং এবং পরিষ্কার উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু আপনি কি জানেন যে বেকিং সোডা ক্যান্সার প্রতিরোধে শরীরকে সাহায্য করার জন্য ব্যবহার করে, সেইসাথে এটি একটি ক্যান্সার রোগীর সনাক্তকরণ এবং ক্যান্সারের বৃদ্ধি স্থির করতে ব্যবহার করতে পারে?

এখন পর্যন্ত ২০০ ধরনের ক্যান্সারের সন্ধান পাওয়া গেছে। আর বেকিং সোডা ব্যবহার করে সব ধরনের ক্যান্সারকে মাত্র ১০ দিনের মধ্যেই নিয়ন্ত্রণে আনা যেতে পারে বলে জানান সিমোনসিনি।

বিগত ২০ বছরেরও বেশি সময় চিকিৎসা করছেন সিমোনসিনি। তিনি এমন অনেক ক্যান্সার রোগী পেয়েছেন, যাদের সুস্থ হয়ে ওঠার বিষয়ে অধিকাংশ চিকিৎসকই হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন। এই বেকিং সোডা ব্যবহারে সেসব মৃত্যুপথযাত্রীদের সারিয়ে তুলেছেন বলে দাবি করেন সিমোনসিনি।

ক্যান্সার আসলে কী ও কেন বেকিং সোডা এ রোগের নিয়ামক তার ব্যাখ্যায় সিমোনসিনি বলেন, ক্যান্সার এমন একটি আলসার যেখানে বিকৃত কোষগুলো জমা হয়ে শরীরের ভেতরেই আলাদা একটা বসতি গড়ে তোলে।

আর সে হিসেবে ত্বকের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে সবচেয়ে ভাল উপাদান হল বেকিং সোডা এবং টিংচার আয়োডিন।

গবেষক সিমোনসিনির এ তথ্য-উপাত্তে এখনো অন্য কোনো গবেষকদের মতামত না পাওয়া গেলেও বেকিং সোডা যে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে অন্তঃকোষীয় কার্যসাধনে সক্ষম সে বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছেন তারা।

আনুমানিক 9.0 এর অ্যালক্যালাইজিং (বা মৌলিক) pH(পিএইচ) দেওয়া, বেকিং সোডা শরীরের মধ্যে জমায়েত হয় এমন অম্লতা প্রতিহত করে। কোষ, টিস্যু, এবং ভোল্টেজ হোমোস্টেসিসের কোষের মধ্যে pH(পিএইচ) দ্বারা বাফার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত করার জন্য বেকিং সোডা ব্যবহার করা যায়। এটি অক্সিজেনশন এবং কার্বন ডাই অক্সাইড বৃদ্ধি করতেও সহায়ক। বেকিং সোডা এছাড়াও শরীরের detoxification প্রক্রিয়া সাহায্য এবং বিকিরণ এক্সপোজার এবং অক্সিডেটিভ ক্ষতি থেকে নিরাময় শরীর সমর্থন করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই গবেষকরা জানতে পেরেছেন ক্যান্সারের সেলগুলো প্রথমে দুটি প্রোটিনে জমাটবদ্ধ হয়। যেটি পরে অন্য সেলগুলোতে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার বার্তা পৌঁছে দেয়। এর মাধ্যমে ক্যান্সারের সেলগুলো রক্তে ছড়িয়ে পড়ে এবং নিজেদের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

ন্যাচার কমিউনিকেশন্সে প্রকাশিত ওই গবেষণাটির নেতৃত্ব দিয়েছেন শ্রীলঙ্কান গবেষক হাসিনি জয়াতিলকা। তিনি এবং তার সহকর্মীরা দাবি করেছেন, তারা একটি ঔষধ মিশ্রণ আবিষ্কারে সক্ষম হয়েছেন যা ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার সেই আণুবীক্ষণিক বার্তাকে প্রতিরোধে সক্ষম।

গবেষকরা এরইমধ্যে জীবজন্তুর শরীরে ওই ওষুধ মিশ্রণটি দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছেন। কিন্তু ক্যান্সার আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসায় এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেই তাদের বিশ্বাস।

 

ক্যান্সার প্রতিরোধে আপনি নিতে পারেন কিছু পদক্ষেপ।
  • ধূমপান আর নয় ।
  • ওজন থাকুক নিয়ন্ত্রণে ।
  • চাই স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস ।
  • রান্না করুন অল্প আঁচে ।
  • এলকোহল সমাধান নয় ।
  • ব্যায়াম হোক নিত্যদিনের করণীয় ।
  • তেজস্ক্রিয়তার প্রভাবমুক্ত থাকুন, যতটা সম্ভব ।

 

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই গবেষকরা জানতে পেরেছেন ক্যান্সারের সেলগুলো প্রথমে দুটি প্রোটিনে জমাটবদ্ধ হয়। যেটি পরে অন্য সেলগুলোতে ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার বার্তা পৌঁছে দেয়। এর মাধ্যমে ক্যান্সারের সেলগুলো রক্তে ছড়িয়ে পড়ে এবং নিজেদের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

ন্যাচার কমিউনিকেশন্সে প্রকাশিত ওই গবেষণাটির নেতৃত্ব দিয়েছেন শ্রীলঙ্কান গবেষক হাসিনি জয়াতিলকা। তিনি এবং তার সহকর্মীরা দাবি করেছেন, তারা একটি ঔষধ মিশ্রণ আবিষ্কারে সক্ষম হয়েছেন যা ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার সেই আণুবীক্ষণিক বার্তাকে প্রতিরোধে সক্ষম।

গবেষকরা এরইমধ্যে জীবজন্তুর শরীরে ওই ওষুধ মিশ্রণটি দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছেন। কিন্তু ক্যান্সার আক্রান্ত মানুষের চিকিৎসায় এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেই তাদের বিশ্বাস।

error: Alert: Content Copying is protected !!